বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৮ আশ্বিন ১৪২৭ ● ৪ সফল ১৪৪২
শিরোনাম: ● এক হাজার ৯৭৬ পৃষ্ঠার সরকারি নির্দেশনা স্বাস্থ্য খাতের নৈরাজ্য কমাতে পারেনি.............আ স ম রব       ● আব্দুস সামাদ ও আব্দুস সালাম আল-আরাফাহ্ ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পুনর্নির্বাচিত       ● আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস'র ইস্যু ব্যবস্থাপনায় বাজারে আসছে দেশের সর্ববৃহৎ আইপিও, রবি আজিয়াটা লিমিটেড       ● ইরানের কাছে সমরাস্ত্র বিক্রি করার ব্যাপারে চীন ও রাশিয়াকে সতর্ক করে দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী        ● ইহুদি বসতির অন্যতম অর্থদাতা চেলসির মালিক       ● রাজধানীর গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান, নারীসহ আটক ১০       ●  আবরো উত্তেজনা , জাতিসংঘের ভাষণে মুখোমুখি চীন-যুক্তরাষ্ট্র      
জাতীয় সম্প্রচার ও গণমাধ্যমকর্মী- এ দুটি আইন পাস হলে হুটহাট করে কাউকে চাকুরিচ্যুত করা সম্ভব হবে না-তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
নিজস্ব প্রতিবেদক, ৭১ সংবাদ ডট কম :
প্রকাশ: শনিবার, ১৪ মার্চ, ২০২০, ১০:৪৮ এএম আপডেট: ১৪.০৩.২০২০ ১০:৫৫ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 61

Image result for তথ্যমন্ত্রী ছবি

Image result for তথ্যমন্ত্রী ছবি

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জাতীয় সম্প্রচার ও গণমাধ্যমকর্মী- এ দুটি আইন পাস হলে হুটহাট করে কাউকে চাকুরিচ্যুত করা সম্ভব হবে না।

সম্প্রচার-মাধ্যমগুলোর সুরক্ষায় সরকারের গৃহীত নতুন নানা পদক্ষেপ ইতোমধ্যে সুফল বয়ে আনছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সম্প্রচার আইন ও গণমাধ্যমকর্মী আইনের মাধ্যমে দেশের সম্প্রচার মাধ্যমগুলোর কর্মীরা চাকুরিগত সুরক্ষার আওতায় আসবেন।

শুক্রবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-ছাত্র কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের (বিজেসি) ২য় সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ড. হাছান বলেন, ‘সম্প্রচার-গণমাধ্যমের কর্মীদের অবশ্যই চাকুরির সুরক্ষা প্রয়োজন। সেজন্যই খুব শিগগিরই গণমাধ্যমকর্মী আইন আমরা মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের চেষ্টা করব।’

জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশনে এ আইনটি উপস্থাপনের ব্যাপারে তথ্য মন্ত্রণালয় আন্তরিকভাবে সচেষ্ট- উল্লেখ করে তিনি বলেন, গণমাধ্যমকর্মী আইন যখন চূড়ান্ত হবে, তখন গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরির আইনগত সুরক্ষা দেয়াও সম্ভব হবে। এ ক্ষেত্রে তথ্যমন্ত্রী গণমাধ্যম মালিক-কর্মী উভয় পক্ষেরই সহযোগিতা কামনা করেন।

এই অনুষ্ঠানে ড. হাছান মাহমুদ জানান, সম্প্রচার আইন দেড় বছর আগে আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছিল। সম্প্রতি আইন মন্ত্রণালয় এটির ভেটিংয়ের কাজ শুরু করেছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি দ্রুত ভেটিং হয়ে এটি আমাদের কাছে পৌঁছে যাবে। বর্তমানে যে সম্প্রচার নীতিমালা রয়েছে, সেটি আইনে পরিণত হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের ভারপ্রাপ্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার জাভেদ প্যাটেল ও বিজেসির উপদেষ্টা একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু।

‘নীতি সংলাপ-কর্মী সুরক্ষা’ শীর্ষক এ সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে বিজেসির সভাপতি রেজওয়ানুল হক রাজা সভাপতিত্ব করেন।

এ সময় গণমাধ্যমের মালিকপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরির সুরক্ষার ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের মালিকপক্ষকে অনেক বেশি তৎপর হতে হবে। দশ বছর ধরে চাকরিরত যে কেউ হঠাৎ জানাল তার চাকরি নেই। এটি মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী, গণতন্ত্রেরও পরিপন্থী। কোনোভাবেই এটি কাম্য নয়। আমি আশা করি, আইন দু’টি পাস হলে এমনটি করা সম্ভব হবে না।’ এ ধরনের ঘটনা যেন না ঘটে তিনি তা প্রত্যাশাও করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই দেশে বেসরকারিখাতে টেলিভিশন-বেতারসহ সম্প্রচার জগতের যাত্রা শুরু হয় উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গত একযুগে এখাতের ব্যাপক বিকাশ ঘটেছে। কিন্তু এটির পাশাপাশি সম্প্রচারের ক্ষেত্রে যে শৃঙ্খলা দরকার ছিল, বিশেষ করে টেলিভিশন সম্প্রচারের ক্ষেত্রে যে শৃঙ্খলা ও ডিজিটালাইজেশন প্রয়োজন ছিল, তা হয়নি।’

ড. হাছান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আমাকে এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়ার পর আমরা স্বল্পতম সময়ের মধ্যেই আপনাদের সবার সহযোগিতায় সেই শৃঙ্খলা অনেকটাই ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি। এখন টিভিগুলোর সিরিয়াল ঠিক রাখার জন্য দেন- দরবার করতে হয় না।’

তিনি বলেন, ‘ক্যাবল অপারেটরদের সাথে কয়েক দফা বসে তাদেরকে আমরা ডিজিটালাইজেশনের জন্য যে অনুরোধ জানিয়েছিলাম, তার পরিপ্রেক্ষিতে তারাই (ক্যাবল অপারেটর) বলেছিল গত বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে ঢাকা এবং চট্টগ্রামে অপারেটিং সিস্টেম ডিজিটাল করা সম্ভবপর হবে। কিন্তু সেটি তারা করতে পারেনি।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সারা দেশের টিভি ক্যাবল অপারেটরদের সিস্টেম ডিজিটালাইজড করার জন্য সর্বোচ্চ একবছরের বেশি সময় লাগা সমীচীন নয়, যদিও আলোচনা করেই সময় দেয়া হবে। কিন্তু, ইচ্ছা থাকলে এক বছরে মধ্যেই তা করা সম্ভব। আর যাদের ইচ্ছা থাকবে না, তারা পারবে না।

তিনি বলেন, ‘যারা পারবেন না, আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তখন আমরা প্রয়োজনে নতুন কেবল অপারেটর লাইসেন্স দেবো, যারা ডিজিটালাইজড হয়েই আত্মপ্রকাশ করবে।’

ড. হাছান এ সময়, দেশীয় সম্প্রচার-মাধ্যমের টিকে থাকা ও বিকাশের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন ও ত্বরিত উদ্যোগ গ্রহণ ও তার সুফল তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, ‘আগে দেশীয় পণ্যের বিজ্ঞাপনগুলো বিদেশে চলে যেত, আমরা সেটি বন্ধ করেছি। এখন অন্তত: বাংলাদেশি পণ্যের বিজ্ঞাপন বিদেশি চ্যানেলে প্রচার হয় না। একটি-দু’টির বিজ্ঞাপন হয়, কিন্তু তারা সে দেশে নিবন্ধিত। আইনানুসারে কোন ধরনের বিজ্ঞাপনই বিদেশি চ্যানেল প্রচার করতে পারে না। আমরা এ ব্যাপারে কড়াকড়ি আরোপের চেষ্টা করেছি। ক্যাবল অপারেটিং ডিজিটাল হলে এটি রোধ করা সম্ভব হবে। আমরা এক্ষেত্রে নির্দিষ্ট সময়সীমা নির্ধারণ করে দিয়ে তৎপরবর্তী সময়ে এ আইন পুরোপুরি বাস্তবায়ন করতে চাই।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশের ছেলেমেয়েরা যারা অভিনয় করেন, বিজ্ঞাপনের মডেল হন, তারা অনেক স্মার্ট। কিন্তু আমরা দেখতে পাই, বাংলাদেশি পণ্যের বিজ্ঞাপন বিদেশ থেকে দ্বিতীয় মানের শিল্পী দিয়ে তৈরি করে আনেন। আমরা একটি বিধান করতে যাচ্ছি, আলোচনা করেছি। মুক্তবাজার অর্থনীতিতে যে কেউ, যে কাউকে দিয়ে বিজ্ঞাপন বানিয়ে আনতে পারেন। বিদেশি অভিনেতা, অভিনেত্রীদের দিয়ে বিজ্ঞাপন বানিয়ে আনতে পারেন। কিন্তু অনেক বেশি ট্যাক্স দিতে হবে। শুধুমাত্র যিনি বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয় করবেন তাকে নয়, যিনি বিজ্ঞাপন বানাবেন তাকেও ট্যাক্স দিতে হবে। যিনি প্রদর্শন করবেন তাকেও ট্যাক্স দিতে হবে। আমি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সঙ্গে কথা বলেছি, অর্থমন্ত্রীকে বিষয়টি জানিয়েছি। এটি হলে আমাদের দেশের কলাকুশলী ও শিল্পের সুরক্ষা হবে।’

‘একটি বাচ্চা ছেলের বিজ্ঞাপনও কি বিদেশ থেকে তৈরি করে আনতে হয়- এই প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে আমরা কড়াকরি করতে যাচ্ছি। দেশের শিল্পকে সুরক্ষা দিতে এটি করা হচ্ছে।’

তথ্যমন্ত্রী এ সময় বিজেসির সম্মেলনের ধারাবাহিকতা ও এদেশের সাংবাদিকদের মেধা ও আন্তরিকতারও প্রশংসা করেন।
৭১সংবাদ ডট কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
আরও খবর


সর্বশেষ সংবাদ
এক হাজার ৯৭৬ পৃষ্ঠার সরকারি নির্দেশনা স্বাস্থ্য খাতের নৈরাজ্য কমাতে পারেনি.............আ স ম রব
আব্দুস সামাদ ও আব্দুস সালাম আল-আরাফাহ্ ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পুনর্নির্বাচিত
আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস'র ইস্যু ব্যবস্থাপনায় বাজারে আসছে দেশের সর্ববৃহৎ আইপিও, রবি আজিয়াটা লিমিটেড
ইরানের কাছে সমরাস্ত্র বিক্রি করার ব্যাপারে চীন ও রাশিয়াকে সতর্ক করে দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
ইহুদি বসতির অন্যতম অর্থদাতা চেলসির মালিক
রাজধানীর গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান, নারীসহ আটক ১০
আবরো উত্তেজনা , জাতিসংঘের ভাষণে মুখোমুখি চীন-যুক্তরাষ্ট্র
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
এবার ফেঁসে যাচ্ছেন অবৈধ টাকা শিকারী একে এম সাহেদ রেজা, প্রাক্তন চেয়ারম্যান ও বর্তমান পরিচালক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক
বগুড়ার শাজাহানপুরে মাস্ক,হ্যান্ডস্যানিটাইজার,সাবান ও করোনা ভাইরাসের সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ
ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি
আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন সাবিনা ইয়াসমিন
বেগম খালেদা জিয়ার ১৩তম কারামুক্তি দিবসে রাজশাহী মহানগর যুবদলের মিলাদ ও দোয়া মাহফিল
মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪১ জনের মৃত্যু
আমাকে কারাগারে ধর্ষণের হুমকি দেয়া হয়েছে: অভিনেত্রী রিয়া
Chief Advisor: A K M Mozammel Houqe MP
Minister, Ministry of Liberation War Affairs, Government of the People's Republic Bangladesh.
Editor & Publisher: A H M Tarek Chowdhury
Sub-Editor: S N Yousuf
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ৭১সংবাদ, ২০১৭
প্রধান কার্যালয় : ৫৩, মডার্ন ম্যানশন (১৪তলা), মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০
বার্তাকক্ষ : +৮৮-০২-৯৫৭৩১৭১, ০১৬৭৭-২১৯৮৮০, ০১৮৫৫-৫২৫৫৩৫
ই-মেইল :[email protected], [email protected], Web : www.71sangbad.com