সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১১ আশ্বিন ১৪২৯
শিরোনাম: দেশের উন্নয়নের চিত্র মার্কিন রাজনীতিবিদের কাছে তুলে ধরার আহবান প্রধানমন্ত্রীর       পঞ্চগড়ের করতোয়া নদীতে নৌকাডুবি নিহত বেড়ে ৩২       ১৫৩ কোম্পানির শেয়ারে ক্রেতা নেই       ৩ কোম্পানির লেনদেন বন্ধ কাল       সূচক পতনে লেনদেন       ইবনে সিনা স্পট মার্কেটে যাচ্ছে মঙ্গলবার       সাংবাদিক রণেশ মৈত্র না ফেরার দেশে      
সরকারী চাকরিতে ৫ শতাংশ আদিবাসী কোটা পুনর্বহালের দাবি
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২, ৫:৫৬ পিএম |

সরকারী চাকরিতে ৫ শতাংশ আদিবাসী কোটা  পুনর্বহালের দাবি

সরকারী চাকরিতে ৫ শতাংশ আদিবাসী কোটা পুনর্বহালের দাবি

১ম ও ২য় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে ৫ শতাংশ আদিবাসী কোটা পুনর্বহাল ও পূর্ণবাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আদিবাসী কোটা রক্ষা কমিট্ মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সকাল ১০ টায় ঢাকা - রাজশাহী মহাসড়ক সংলগ্ন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রধান ফটকের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

 মানববন্ধনে আদিবাসী কোটা রক্ষা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ধনেশ টুডুর সঞ্চালনায় আদিবাসী স্টুডেন্টস এ্যাসোসিয়েশন অব রাজশাহী ইউনিভার্সিটি ( আসারু) এর সভাপতি সিলভেস্টার রুবেল মুর্মু বলেন যখন আমরা স্বাধীন দেশে বসবাস করি, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করছি, সেখানে সহজ সরল ও পিছিয়ে পড়া আদিবাসীদের কেন সংগ্রাম করে অধিকার আদায় করতে হবে? আদিবাসী কোটা রক্ষা কমিটির যুগ্ম - আহ্বায়ক ধনেশ টুডু বলেন, ইতিহাস পর্যালোচনা করলে জানা যায়, ভারতীয় উপমহাদেশে কোটার প্রচলন প্রথম শুরু হয় ১৯১৮ সালে।

 সিভিল সার্ভিসে ব্রিটিশদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকতে না পারায় ভারতীয়দের জন্য আলাদা কোটার ব্যাস্থা করা হয়। পরবর্তী সময়ে শিক্ষায় অনগ্রসর মুসলিমদের জন্যও আলাদা কোটা রাখা হয় যাতে হিন্দুদের সাথে উন্নয়নের ধারা ধরে রাখতে পারে। ঠিক তেমনি বাংলাদেশেও ১৯৮৫ সালে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে তুলে আনার জন্য ৫% কোটা রাখা হয়।

 পরিশেষে, আদিবাসী কোটা রক্ষা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আগষ্টিন মূর্মু বহির্বিশ্বের দেশগুলোতে সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে আদিবাসী কোটা ব্যবস্থা তুলে ধরেন এবং তিনি দাবি করেন - বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী আদিবাসী কোটা একটি সাংবিধানিক ন্যায্য অধিকার। তিনি আরও বলেন, আদিবাসী কোটা বাতিলের পর প্রধানমন্ত্রী তাদের কোটা পুনর্বহালের আশ্বাস দিলেও দীর্ঘ চার বছর পরও তা বাস্তবায়ন করা হয়নি।






আরও খবর


Chief Advisor:
A K M Mozammel Houqe MP
Minister, Ministry of Liberation War Affairs, Government of the People's Republic Bangladesh.
Editor & Publisher: A H M Tarek Chowdhury
Sub-Editor: S N Yousuf

Head Office: Modern Mansion 9th Floor, 53 Motijheel C/A, Dhaka-1223
News Room: +8802-9573171, 01677-219880, 01859-506614
E-mail :[email protected], [email protected], Web : www.71sangbad.com